21 January 2017
g+ tw Chapaibarta Faceook Page
Chapaibarta.com

পদ্মায় বিষ টোপে মারা যাচ্ছে পরিযায়ী পাখি

Published:  31 December 2016
পদ্মায় বিষ টোপে মারা যাচ্ছে পরিযায়ী পাখি

রাজশাহীঃ এবার শীতে রাজশাহীর পদ্মায় এসেছে বিপুল সংখ্যক পরিযায়ী পাখি। তবে এসব পাখি ধরতে বেশ সক্রিয় চোরা শিকারীরা। তাদের পাতা টোপে মারা পড়ছে এসব পাখি। এরই মধ্যে তিনটি মৃত পাখি নিয়ে গেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষক আনিসুজ্জামান মো. সালেহ রেজা।

বৃহস্পতিবার সকালে চর খানপুর ও মাঝারদিয়াড়ের মাঝামাঝি পদ্মায় পাঁচটি মৃত পাখি ভাসতে দেখেন নদী পারাপারের লোকজন। তারাই সেগুলো তুলে আসেন নগরীর কেশবপুরে। এর মধ্যে দুটি পাখি ছিলো চখাচখি। অন্যতিনটি পরিযায়ী পাখি পাতি তিলি হাঁস (Common Teal)। চখাচখি পাখি দুটি নিয়ে গেছেন এক নৌকার যাত্রী। খবর পেয়ে পরিযায়ী পাখি তিনটি নিয়ে যান ওই রাবি শিক্ষক।

এর আগে বাংলাদেশ বার্ড ক্লাবের সদস্য হাসনাত রনি ছবি দেখে তিনটি পাখি শনাক্ত করেন। তিনি বলেন,  মৃত ওই তিনটি পাখির দুটিই নারী। আর রঙিন মাথা পাখিটি পুরুষ।

এ বিষয়ে রাবি শিক্ষক আনিসুজ্জামান বলেন, বিভাগের যাদুঘরে রাখার জন্য পাখিগুলোর দেহাবশেষ সংরক্ষণ করবেন তারা। তার ধারণা, চোরা শিকারীদের বিষটোপে মারা গেছে পাখিগুলো। তবে বিষ মেশানো শষ্য বীজ খেয়েও মারা যেতে পারে। কারণ, চরের চাষিরা বীজতলা রক্ষায় এ ফাঁদ পেতেছেন।

এদিকে, পদ্মায় পরিযায়ী পাখি শিকারের খবর নেই রাজশাহীর বণ্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের কাছে। প্রতিষ্ঠানটির জীববৈচিত্র সংরক্ষণ কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম বলেন, মৌসুমের শুরু থেকেই তারা বিভিন্ন এলাকায় নজরদারি চালিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু এখনো তাদের কাছে এমন খবর আসেনি। এমন ঘটনা ঘটে থাকলে জড়িতদের সনাক্ত করে দ্রুত আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে রাজশাহী বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা আবুল কালাম বলেন,  প্রতি বছরই শীত মৌসুমে প্রচণ্ড শীত পড়ে এমন দেশগুলো থেকে ঝাঁকে ঝাঁকে পরিযায়ী পাখি আসে বাংলাদেশে। নদীনালা, খালবিল আর হাওর-বাওড়ে বিচরণ করে বেড়ায়। কয়েক বছর থেকে পদ্মায় জেগে ওঠা চরে বিপুল সংখ্যক পরিযায়ী পাখি আসছে। খাবার ও বাবস্থানের প্রচুর্যতায় বাড়ছে পাখির আগমন। কিন্তু এ বছর শীত কিছুটা কম হওয়ায় পরিযায়ী পাখিও এসেছে তুলনামূলক কম। শীত শেষে এসব পাখি ফিরে যায়। তবে প্রচুর পাখি মারা পড়ে চোরাশিকারীদের ফাঁদে। যদিও পরিযায়ী পাখি রক্ষায় বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ কঠোর নজরদারি চালিয়ে যাচ্ছে।



সর্বশেষ খবর