29 March 2017
g+ tw Chapaibarta Faceook Page
Chapaibarta.com


চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক বীর মুক্তিযোদ্ধা 'মঈনুদ্দীন মন্ডল'-এর জীবনী

Published:  28 October 2016
চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক বীর মুক্তিযোদ্ধা 'মঈনুদ্দীন মন্ডল'-এর জীবনী

একাত্তরের রণাঙ্গনের অন্যতম বীর মুক্তিযোদ্ধা, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার সফল চেয়ারম্যান, বিশিষ্ট রাজনীতিক-সমাজসেবী 'মঈনুদ্দীন মন্ডল' ১৯৪৮ সালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের রামকৃষ্টপুর গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় মঈনুদ্দীন মন্ডল ছিলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের তুখোর ছাত্রলীগ নেতা। ১৯৬৮-৬৯'র গণঅভ্যুত্থান, ১৯৭০'র নির্বাচন, ১৯৭১'র মার্চে অসহযোগ আন্দোলন এবং তারপর প্রতিরোধযুদ্ধ প্রভৃতিতে তিনি সক্রিয় ও বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখেন। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন তিনি গৌড়বাগান প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের পলিটিক্যাল মটিভেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

সফল ও বর্ণাঢ্য রাজনীতিক জীবনে আলহাজ্ব মঈনুদ্দীন মন্ডল ছিলেন 'ঐতিহ্যবাহী চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার'সফল চেয়ারম্যান। তাঁকে সকলে আধুনিক পৌরসভার রুপকার হিসেবেই জানে। পৌর মেয়র থাকাকালীন সময়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার আরেক সফল চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা প্রয়াত আব্দুল মান্নান সেন্টুর স্মৃতি রক্ষার্থে 'আব্দুল মান্নান সেন্টু মার্কেট' নামে একটি অত্যাধুনিক মার্কেট, চাঁপাইনবাবগঞ্জ কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, বিডিয়ার মার্কেট (মন্ডল মার্কেট), রাস্তা-ঘাট প্রভৃতি নির্মাণসহ পৌরসভার উন্নয়ন ও আধুনিকায়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন সমাজসেবী মঈনুদ্দীন মন্ডল। সাহিত্য-সংস্কৃতি অনুরাগী মঈনুদ্দীন মন্ডল পৌর মেয়র থাকাকালীন সময়ে ২০০৩ সালে 'চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার শতবর্ষ' উদযাপন অনুষ্ঠানের বর্ণাঢ্য আয়োজন করেন। যেখানে দেশবরেণ্য গুণী, কৃতি, আলোকিত মানুষদের উপস্থিতিতে তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জের গুণী, কৃতি, আলোকিত মানুষদের সম্মাননা জানানোর উদ্যোগ গ্রহণ করেন। চাঁপাইনবাবগঞ্জের সাংস্কৃতিক অঙ্গনকে সুষ্ঠুধারায় বিকশিত করার লক্ষ্যে মেয়র থাকাকালীন সময়ে তিনি বৈশাখী মেলা, বই মেলাসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন ও পৃষ্ঠপোষকতা করেন। তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন এবং সেই স্কুলে প্রতিষ্ঠাতা-সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।

বিশিষ্ট রাজনীতিক মঈনুদ্দীন মন্ডল ১৯৬৭-৬৮ সালে নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজ ছাত্র সংসদের ভি.পি ও জি.এস হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৬৭ সালে তৎকালীন চাঁপাইনবাবগঞ্জ মহকুমা ছাত্রলীগের সভাপতি, বৃহত্তর রাজশাহী ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি এবং ১৯৬৭-৬৮ সালে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের অন্যতম সদস্য নির্বাচিত হন। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি এবং শহর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক হিসেবে বর্তমানে তিনি দায়িত্ব পালন করছেন।আলোকিতচাঁপাইনবাবগঞ্জ।।



 



সর্বশেষ খবর