29 March 2017
g+ tw Chapaibarta Faceook Page
Chapaibarta.com


বিএনপিকে চাপের মধ্যেই রাখতে চায় সরকার

Published:  1 April 2016
বিএনপিকে চাপের মধ্যেই রাখতে চায় সরকার

কাউন্সিলের মাধ্যমে বিএনপি সংগঠিত হওয়ার পরিকল্পনা করলেও সরকার আগামী জাতীয় নির্বাচন পর্যন্ত দলটির প্রতি চাপ অব্যাহত রাখতে পারে। অর্থাৎ ক্ষমতার বিকল্প রাজনৈতিক শক্তি হিসেবে বিএনপি ঘুরে দাঁড়াক, তা চায় না সরকারি দল। সরকারের শীর্ষ পর্যায়ের নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে কথা বলে তাঁদের এ চিন্তাভাবনার কথা জানা গেছে। সম্প্রতি কাউন্সিলের পর বিএনপির কিছুটা নড়াচড়া দেখেই দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবং মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেয় সরকার। দলটি নতুন কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি দেওয়ার চেষ্টা করলে শীর্ষ পর্যায়ের আরও অনেকেরই মামলা সচল করা হতে পারে বলে জানা গেছে। জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বিএনপি ইতিবাচক রাজনীতি করলে ভালো। কিন্তু তারা রাজনীতির নামে ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ডের পুরোনো ধারায় ফিরে গেলে জনবিচ্ছিন্ন হবে। পাশাপাশি সরকার কঠোর প্রশাসনিক পদক্ষেপ নেবে। সরকারের অন্তত তিনজন জ্যেষ্ঠ মন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বিএনপি রাজনৈতিকভাবে সংগঠিত হোক বা রাজনৈতিক কর্মসূচি নিয়ে মাঠে নামুক, সে সুযোগ সরকারি দল দেবে না। এমনকি সরকারবিরোধী কর্মসূচি দিয়ে মাঠে নামলে দলটি বাধার মুখে পড়বে। সরকার মনে করছে, বিএনপিকে নির্বিঘ্নে রাজনৈতিক কর্মসূচি পালনের সুযোগ দিলে দলটি সুসংগঠিত হয়ে যেতে পারে। ফলে আগামী নির্বাচনী প্রস্তুতিতে আওয়ামী লীগকে চাপে পড়তে হবে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন মন্ত্রী বলেন, বিএনপি এখন অনেকটা সুবোধ বালকের মতো। কিন্তু দলটি চাপে না থাকলে রাজনৈতিক কর্মসূচি নিয়ে মাঠে নামতে পারে। সরকারি দলের দুজন নেতা বলেন, বিএনপিকে ক্ষমতার বিকল্প শক্তি হওয়ার সুযোগ দিলে জনগণ, প্রশাসনসহ সমাজের একটি প্রভাবশালী অংশ দলটির প্রতি ঝুঁকে পড়তে পারে। তাই বিএনপি ক্ষমতায় আসতে পারে, এমন ধারণা জনমনে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার সুযোগ দেবে না সরকার। জানতে চাইলে ক্ষমতাসীন ১৪ দলের অন্যতম শরিক বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি এবং বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন প্রথম আলোকে বলেন, প্রতিপক্ষকে চাপে রাখার রাজনৈতিক কৌশল আছে সরকারের। এ ক্ষেত্রে বিএনপিকে রাজনৈতিকভাবে কোনো জায়গা দেওয়ার সুযোগ নেই। যৌক্তিক রাজনীতিতে ফিরে না আসা পর্যন্ত দলটির প্রতি সরকারের এ অবস্থান অব্যাহত থাকবে। আওয়ামী লীগের কয়েকজন জ্যেষ্ঠ নেতার সঙ্গে কথা বলে আভাস পাওয়া গেছে, বিএনপির কাউন্সিল ঘিরে সরকারের একটা পরিকল্পনা থাকলেও তা তাৎক্ষণিক কাজে লাগেনি। তবে বিএনপি পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করলে বঞ্চিত নেতাদের অসন্তোষ সরকার কাজে লাগাতে পারে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মাহবুবুর রহমান বলেন, অনেক আগে থেকেই এই চাপ আছে এবং এরই ধারাবাহিকতা চলছে। তিনি বলেন, সরকারি দলের অপরাজনীতির শিকার হয়েছে বিএনপি। ফলে স্বাভাবিক রাজনৈতিক কর্মসূচি তাঁরা পালন করতে পারছেন না। বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘ঘুরে দাঁড়ানোর পরিকল্পনা আমাদের আছে, কিন্তু সামনে এগোনো সহজ না। দলকে সংগঠিত করার মাধ্যমে আমাদের এগোতে হবে। আমাদের কৌশল নিতে হবে, আন্দোলনকে কীভাবে জনগণের দোরগোড়ায় নিয়ে যাওয়া যায়।’

 

সূত্র: প্রথম আলো



সর্বশেষ খবর