28 April 2017
g+ tw Chapaibarta Faceook Page
Chapaibarta.com


অরবিন্দ চক্রবর্তীর কবিতা

Published:  
অরবিন্দ চক্রবর্তীর কবিতা
লিপস্টিক....... পদকর্তা হাসি চিবান আর সভানেতা চুলকিয়ে চুলকিয়ে মেঘ করেন। অন্দরমহলে রোদ উঠলে খাঁচার মুনিয়া খুব একা ঠোঁটে রুমাল চেপে রসময় খুলে দেন।

          লিপস্টিক

পদকর্তা হাসি চিবান আর সভানেতা চুলকিয়ে চুলকিয়ে 
মেঘ করেন। 
অন্দরমহলে রোদ উঠলে খাঁচার মুনিয়া 
খুব একা ঠোঁটে রুমাল চেপে রসময় খুলে দেন।
একাদশীর শেষ দিন পিরিয়ড চলছিল বিবির 
রাজার কুমার সে কথা খিড়কির দরজা খুলে জানলে
পাড়াতো প্রতিবেশির হাত ধরে 
আয়না দেখাতে গিয়েছিল দম্পতি 
ফেরার পথে নদী ফুঁসলে উঠেছিল 
পারাপারে সেতুযোগ ছিল না।
রিকশায় ভেসে মেয়েটি এলো হোস্টেলে 
বান্ধবীদের একজন নেত্রী সেজে বলেই ফেললো,
‘এত লিপস্টিক যায় কই?’

 

            গাছেদের পারিবারিক টয়লেট থেকে

হিংসাই চরম ধর্ম। গাছেদের পারিবারিক টয়লেটে গেছ কি?
কোরতা গায়ে পাশের গাছটি জিপার খুলে কী যেন হেসে দেয়।
আরেকবার বলেছে সে, আমি অন্ধ । তালগাছ সাক্ষি- বনবিথী সাক্ষি ।
সাক্ষি সত্যুক তারা। নক্ষত্র যে দিন আমাকে চোখ টিপে জেলাসি শেখালো
সে থেকেই আমি গাছখালু। স্ক্রিপ্টে লিখে নিই সপ্তাহান্তের বাজার।
সুযোগে আমি মাড়োয়ারি-মাড়োয়ান-লাঠিয়ালও। মিত্রতাবশত চুরি করে 
খাই চোখের আলো। আর মার্শাল আর্ট শেখাতে শেখাতে হ্যাট তুলে 
হুইসেল করি মার্শাল’ল। পূর্বজবৃক্ষরা আমাকে ‘ধরমু ধরমু’ করে। 
আমি বলি, ‘এইতো ধর্ম’।