সোনামসজিদ-মহদিপুর স্থলবন্দরে বাণিজ্যিক গতিশীলতা ফেরাতে বৈঠক অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক, শিবগঞ্জ: চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ স্থলবন্দর ও ভারতের মহদিপুর স্থলবন্দরের উভয় দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যের গতিশীলতা ফিরিয়ে আনতে বুধবার দুপুরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ভারতের মহদিপুর স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানী অ্যাসোসিয়েশন কার্যালয়ে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জানাগেছে- আলোচনা সভায় বাংলাদেশের পক্ষে সোনামসজিদ স্থলবন্দরের সহকারী কাস্টমস কমিশনার সোলাইমান হোসেন ও বেলাল হোসেন, আমদানি-রপ্তানী কারক গ্রুপের সভাপতি রফিকুল ইসলাম, সোনামসজিদ সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হারুন অর রশিদ, পানামা সোনামসজিদ পোর্ট লিংক লিমিটেডের পক্ষে মাইনুল ইসলাম অংশ নেয়।

অপরদিকে ভারতের মহদিপুর স্থলবন্দরের পক্ষে কাস্টমস সুপার পার্থ বৌদ্দ্য, আমদানি-রপ্তানী অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি লিখিল চন্দ্র ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক সুকুমার সাহা, মহদিপুর স্থলবন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শ্রী ভূপতি মন্ডলসহ অন্যরা।

এছাড়া মহদিপুর ট্রাক পার্কিং কেন্দ্রের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন জালসু শেখ। আলোচনা সভায় বিষয়বস্তু ছিল- ভারত থেকে আমদানিকৃত পণ্যভর্তি ভারতীয় ট্রাক পানামা ইয়ার্ডের ভেতরে দিনের পর দিন আটকে রেখে একদিকে যানজট সৃষ্টি। অন্যদিকে ভারতীয় ট্রাক চালকদের হয়রানী।

এছাড়াও ওই আলোচনা উঠে আসে ভারত থেকে যেসমস্ত পণ্যভর্তি ট্রাক সোনামসজিদ স্থলবন্দরে পৌঁছে সেই পণ্যগুলো জরুরী ভিত্তিতে ছাড় করে ভারতীয় ট্রাকদের ছেড়ে দিতে হবে। একই সঙ্গে উভয় দেশের কাস্টমস, আমদানিকারক ও সিএন্ডএফ এজেন্টদের পণ্য আমদানি-রপ্তানীর ক্ষেত্রে এবং রাজস্ব পরিশোধ, পণ্য ছাড়করণে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

অপরদিকে মহদিপুর স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ প্রস্তাবে জানিয়েছে- সোনামসজিদ স্থলবন্দরে আমদানিকারকদের অগ্রিম রাজস্ব পরিশোধ করে ভারত থেকে পণ্য আমদানি করলে পানামার অভ্যন্তরে কোন ট্রাক যানজট ও দুর্ণীতি হবেনা।

এবিষয়ে সোনামসজিদ স্থলবন্দরের বাণিজ্যিক সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলো মহদিপুর স্থলবন্দরের প্রস্তাবে প্রেক্ষিতে আলোচনা সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন।

উভয় স্থলবন্দরের সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদকেরা আলোচনা সভা নিশ্চিত করেছেন।

এই বিভাগের সর্বশেষ খবর