মরা মুরগির ব্যবসা

  • Date: July 4, 2018
  • cat
  • | Post By: চাঁপাই বার্তা.কম (M)

তাসকিন জাহান: দীর্ঘদিন ধরে একটি চক্র মরা মুরগির ব্যবসা করছে। বিভিন্ন হোটেল-রেস্টুরেন্টের মালিক ও কর্মচারীদের সঙ্গে আঁতাত করে এসব কেনাবেচা হচ্ছে। মরা মুরগি পুড়িয়ে ফেলা বা ধ্বংস করার কথা থাকলেও ওই চক্র পোলট্রি ফার্ম বা বাজার থেকে মরা মুরগি সংগ্রহ করে দেদার বিক্রি করছে। সম্প্র্রতি রাজধানীতে মরা মুরগিসহ দু’জনকে আটক করেছে র‌্যাব। মানুষের খাবার নিয়ে প্রতারণার এই নিষ্ঠুর বীভৎসতা দেখে দেশবাসী হতবাক। মানুষের মাঝে সৃষ্টি হয়েছে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত নানা ধরনের উদ্বেগ ও শঙ্কা। ডাক্তারদের মতে, মরা মুরগির মাংস খেলে পেটের পীড়াসহ মারাত্মক দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এমনকি মানুষের কিডনি ও লিভারে নানা সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। ইসলামি শরিয়তে মরা জীবজন্তু ও পশুপাখির মাংস খাওয়া হারাম। এগুলোর ক্রয়-বিক্রয় এবং তা থেকে যে কোনো লাভ নেয়াও হারাম। এমনকি কোনো জীবজন্তু বা পশুপাখি যদি মারা যায় তাহলে তা নিজ হাতে অন্য কোনো মাংসাশী প্রাণীকে খাওয়ানোও বৈধ নয়।

এ অবস্থায় সহজেই অনুমান করা যায় মরা মুরগির ব্যবসার বিষয়টি। মরা মুরগির ব্যবসা বিকৃত রুচির পরিচায়কও বটে। কোনো বোধসম্পন্ন মানুষ এ কাজ করতে পারে না। কারণ, ইসলাম মানুষের জন্য যা অনিষ্টকর, অকল্যাণকর ও নিকৃষ্ট, সেসব বস্তু, পণ্য ও বিষয় থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ দিয়েছে। ইসলামের দৃষ্টিতে প্রতারণা ও বিশ্বাসঘাতকতা জঘন্যতম এক অপরাধ। মরা মুরগির ব্যবসাটি সম্পূর্ণরূপে প্রতারণা তা আর নতুন করে বলতে হবে না।

এক শ্রেণীর অসাধু লোকের কারসাজিতে হাজার হাজার মানুষ নিজের অজান্তে হারাম খাচ্ছে, যা কোনোভাবেই কাম্য নয়।

মৃত জীবজন্তু খাওয়ার ব্যাপারে কোরানে কারিমে ইরশাদ হচ্ছে, ‘তিনি তোমাদের ওপর হারাম করেছেন, মৃত জীব, রক্ত, শূকরের মাংস এবং সেসব জীবজন্তু যা আল্লাহ ব্যতীত অপর কারো নামে উৎসর্গ করা হয়।’-সুরা বাকারা : ১৭৩

এই আয়াতের আলোকে স্পষ্ট বোঝা যায় যে, যেসব প্রাণী হালাল করার জন্য শরিয়তের বিধান অনুযায়ী জবাই করা জরুরি, সেসব প্রাণী যদি জবাই ব্যতীত অন্য কোনো উপায়ে যেমন-আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে, অসুস্থ হয়ে কিংবা দম বন্ধ হয়ে মারা যায়, তবে সেগুলোকে মৃত বলে গণ্য করা হবে এবং সেগুলোর গোশত খাওয়া হারাম। আমরা আশা করি, আমাদের দেশের হোটেল ব্যবসায়ীরা বিষয়টি মাথায় রেখে ব্যবসা পরিচালনা করবেন।

– লেখক: ধর্মীয় গবেষক

এই বিভাগের সর্বশেষ খবর