বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ নয়

বার্তা ডেস্ক: পাইকারি ও খুচরা বাজারে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি করে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ ও বেআইনি ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে রোববার বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও মো. আশরাফুল কামালের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ এই রুল জারি করেন।

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে জ্বালানি ও বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ের সচিব ও বিইআরসি চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্টদের উক্ত রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার জ্যোর্তিময় বড়ুয়া। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু।

পরে ব্যারিস্টার জ্যোর্তিময় বড়ুয়া সাংবাদিকদের বলেন, ‘গত বছরের ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে ৫ অক্টোবর পর্যন্ত বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির বিষয়ে বিইআরসি গণশুনানি করে।

আইন অনুযায়ী শুনানির করার ৯০ দিনের মধ্যে একটি লিখিত আদেশ প্রদানের কথা। কিন্তু কোনো আদেশ প্রদান না করে একই বছরের ২৩ নভেম্বর পাইকারি ও খুচরা পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি করা হয়।’

এ কারণে বিইআরসির ওই সিদ্ধান্ত আইন অনুযায়ী না হওয়ায় তা চ্যালেঞ্জ করে কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) পক্ষে আহ্বায়ক স্থপতি মোবাশ্বের হাসান গত ২৩ মে এ রিট দায়ের করেন। ওই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত এই রুল জারি করেন।

উল্লেখ্য, গত বছরের ২৩ নভেম্বর বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয় বিইআরসি। প্রতি ইউনিট (এক কিলোওয়াট ঘণ্টা) বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হয় গড়ে ৩৫ পয়সা বা ৫ দশমিক ৩ শতাংশ।

বিইআরসি সচিব মো. মাহবুবুর রহমান পৃথক বিজ্ঞপ্তি জারি করেন। একটিতে পাইকারি (বাল্ক) এবং অপরটি খুচরা মূল্যহার ডিসেম্বর থেকে পুনঃনির্ধারণের কথা বলা হয়। সূত্র- যুগান্তর

এই বিভাগের সর্বশেষ খবর