চাঁপাইনবাবগঞ্জে ‘এনএসআই’ ও ‘ডিজিএফআই’ এর দুই ভুয়া সদস্য র‍্যাবের হাতে ধরা

বার্তা ডেস্কঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জের পৌর এলাকার কালিতলা থেকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ২ গোয়েন্দা বিভাগের ভূয়া সদস্য কে আটক করেছে র‌্যাব।

র‌্যাবের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে  জানানো হয়, পৌর এলাকার কালিতলা এলাকার ১ নং সড়কের মোসাঃ মোসলেমা খাতুন এর ভাড়া দেয়া বাড়ীর নীচতলায় অভিযান পরিচালনা করে শিবগঞ্জ উপজেলার কানসাট ইউনিয়নের চকহরিপুর গ্রামের মোঃ বাবুল হোসেনের ছেলে মোঃ একরামুল হক @ সুমন (২১) নামে এক ভূয়া এনএসআই কর্মকর্তা ও একই উপজেলার চককীর্ত্তি ইউনিয়নের চকনাধড়া গ্রামের আব্দুস সামাদের ছেলে রেজাউল করিম রিমন (২৬)। এ সময় তাদের কাছ থেকে প্রতরনা কাজে ব্যবহৃত ১ টি খেলনা পিস্তল, ১ টি ল্যাপটপ, ১ টি পাসপোর্ট, ১ টি স্পাই মোবাইল ঘড়ি সহ ৩ টি নকল সীল পাওয়া যায়।

র‌্যাব জানায়, বারঘরিয়া এলাকার পিনাক নামে এক যুবক কে অর্থের বিনিময়ে গোয়েন্দা সংস্থায় চাকুরীর ব্যবস্থা করে দেয়ার কথা বলে তার কাছ থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শাখার ডাচ বাংলা ব্যাংকের একাউন্ট নম্বর- ২৪০১৫১২৭০২ এ ৩ ধাপে ১ লাখ টাকা নেয়। এক পর্যায়ে পিনাকের বিষয়টি সন্দেহ হলে সে একরামুলের ভাড়াকৃত বাসা চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের ১নং গলি কালিতলাস্থ মোসাঃ মোসলেমা খাতুন এর বাড়ীর নীচতলায় একরামুলের কাছে যায় এবং তার কাছে টাকা ফেরত চায়। এসময় উক্ত বাসায় একরামুলের অপর সহযোগী মোঃ রেজাউল করিম রিমন উপস্থিত ছিল। তখন একরামুল সুমন তার সহযোগী রেজাউল করিম রিমনকে এনএসআই এর একজন ফিল্ড অফিসার হিসাবে পরিচয় করিয়ে দেয় এবং পিনাকের টাকা ফিরিয়ে দিতে প্রতিশ্রুতি দেয়। কিন্তু একরামুল পিনাকের টাকা ফেরত না দিয়ে বিভিন্ন প্রকার টালবাহানা শুরু করে।

একরামুলের কার্যক্রমে তারা আদৌ এনএসআই এর কোন সদস্য কিনা তা পিনাকের সন্দেহ হওয়ায় পিনাক চাঁপাইনবাবগঞ্জ র‌্যাব ক্যাম্পে এসে একরামুল ও রেজাউলের বিষয়টি র‌্যাবকে অবহিত করে। পিনাকের দেওয়া তথ্যমতে র‌্যাব একরামুল সুমনের ফেসবুক পেইজে প্রবেশ করে এবং সেখানে একরামুলের স্ট্যাটাসে ফিল্ড অফিসার এনএসআই ও ফিল্ড অফিসার ডিজিএফআই দেখতে পায়।

র‌্যাব কর্তৃক চাঁপাইনবাবগঞ্জ ডিজিএফআই এবং এনএসআই অফিসে তাদের দুজনের সম্পর্কে তথ্য যাচাই করে জানতে পারে উপরোক্ত নামের কোন ডিজিএফআই বা এনএসআই সদস্য চাঁপাইনবাবগঞ্জে নেই। এর সুত্র ধরে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল কোম্পানী কমান্ডার স্কোয়াড্রন লীডার মোহাম্মদ সাঈদ আব্দুল্লাহ আল-মুরাদের নেতৃতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের ১নং গলি কালিতলাস্থ মোসাঃ মোসলেমা খাতুন এর বাড়ীর নীচতলায় প্রতারক একরামুল সুমন ও রেজাউল করিম রিমন এর ভাড়াকৃত রুমে অভিযান পরিচালনা করে তাদেরকে উপরোক্ত মালামালসহ হাতেনাতে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনাস্থলে উপস্থিত লোকজন ও র‌্যাবের অফিসারদের সামনে ধৃত আসামীদ্বয় দীর্ঘদিন ধরে নিজেদের ভূয়া এনএসআই ও ডিজিএফআই অফিসার সেঁজে মানুষের নিকট হতে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আত্মসাৎ সহ বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িত থাকার কথা অকপটে স্বীকার করে। র‌্যাব আরও জানায় এ ব্যাপারে সদর থানায় বুধবার একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এই বিভাগের সর্বশেষ খবর