নানা আয়োজনে চাঁপাইনবাবগঞ্জে বর্ষ বরণের শোভাযাত্রা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে পুরাতন বছরের সকল গ্লানি মুছে বাংলা নববর্ষকে বরণ করতে চাঁপাইনবাবগঞ্জে সব বয়সের মানুষ উৎসবে মেতে উঠে। অসাম্প্রদায়িক বাঙালির সবচেয়ে বড় উৎসব পহেলা বৈশাখ। বর্ষবরণ উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ঢাক-ঢোল, ও বাদ্য’র মধ্যদিয়ে মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করে।

শনিবার সকালে জেলা প্রশাসক কার্যালয় চত্বরের সামনে থেকে শোভাযাত্রাটি নাচ-গান, হাসি-আনন্দে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন শেষে শিশু পার্কের আম্রকাননে গিয়ে শেষ হয়। শোভাযাত্রায় জেলা প্রশাসক মোঃ মাহমুদুল হাসান, পুলিশ সুপার টিএম মোজাহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এরশাদ হোসেন খা্নঁ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মো. দেলোয়ার হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আবু হায়াত মো. রহমতুল­াহ, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আলমগীর হোসেন, পৌর মেয়র মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

বর্ণিল সাজে সজ্জিত হয়ে শোভাযাত্রায় অংশগ্রহন করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভা, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। আবহমান গ্রাম বাংলার সেই ঐতিহ্য গরু গাড়ী, পাল্কি, গ্রামের বধূ, ঢেঁকি, লাঙ্গল, মই, ঘুড়িসহ রংবেরং এর ফেস্টুন শোভাযাত্রাকে আকর্ষনীয় করে তোলে। পরে বর্ষবরণের মূল আয়োজন সংগীত, আবৃত্তি ও নৃত্য পরিবেশিত হয়।

শিল্পীদের রং তুলিতে তাদের বিভিন্ন স্থানে পহেলা বৈশাখের আল্পনা এঁকে শুভেচ্ছা জানায়।

সাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে বাংলাদেশ মেডিকেল এ্যাসোসিয়েশন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখা নবাবগঞ্জ ক্লাবে বাঙালির প্রাণের উৎসব বর্ষবরণ ১৪২৫ পালন করে। সেখানে গ্রাম বাংলার বিভিন্ন খাবার পরিবেশন করা হয়।

এদিকে, সাধারণ পাঠাগারের উদ্যোগে সকালে দই, চিড়া ও মিষ্টি খাবারের আয়োজন করা হয় এবং সঙ্গীত ও নৃত্য পরিবেশিত হয়। এসময় সাধারণ পাঠাগার ও নাগরিক কমিটি সোনামনির পাঠাশালার সেই রফিক চা ওয়ালাকে ক্রেস্ট দিয়ে সংবর্ধনা প্রদান করেন।

দিনভর বর্ষবরণে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন নানান অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

এই বিভাগের সর্বশেষ খবর