রাজশাহীতে একটি অন্যরকম বিয়ে ।। বর এলো হাতির পিঠে, বউ গেলো টমটমে


বার্তা ডেস্কঃ তানোর উপজেলায় শুক্রবার অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া বিয়েটা ছিলো বেশ আলোচিত। বর বিয়ে করতে গেলেন হাতির পিঠে চড়ে। অন্যদিকে বিয়ে শেষে কনে শ্বশুরবাড়িতে এলেন ঘোড়ার গাড়িতে। রাজশাহীর তানোর উপজেলা সদরের আমশো মথুরাপুর এলাকায় অনুষ্ঠিত বিয়েটি এলাকা মানুষের আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু।

বর হাসান মাসুদ (২৯)। সে তানোর আব্দুল করিম সরকার কলেজে শিক্ষকতা করেন। তার বাবা মৃত আলতাফ হোসেন। শুক্রবার বিয়ের দিন বেলা ১১টার দিকে হাতির পিঠে চড়ে বর হাসান মাসুদ রওনা হন নতুন বউ আনতে। সঙ্গে বরযাত্রীরা যান মাইক্রোবাসে।

ছেলের বাড়ি থেকে প্রায় ১২ কিলেমিটার দূরে উপজেলার পাঁচন্দর ইউনিয়নের চকপাড়া গ্রামে জেসমিন আরার (২০) সঙ্গে তার বিয়ে হয়। বিয়ে শেষে ঘোড়ার গাড়িতে চড়ে আসেন বর হাসান ও কনে জেসমিন। আধুনিক যুগে যান্ত্রিক যানবাহন ব্যবহার না করে বিয়েতে এমন ব্যতিক্রমধর্মী হাতি ও ঘোড়ার গাড়ি বাহন হিসেবে ব্যবহার করায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। হাতির পিঠে চড়ে বর আসছে, এ খবরে বিয়ে বাড়িতে উৎসুক মানুষের ভিড় জমে।

বরের আত্মীয়রা জানান, হাসান ভাইয়ের বিয়েতে দুইটি হাতি ভাড়া করে আনা হয় নওগাঁর ধামুরহাট থেকে। একটি ঘোড়া গাড়িতে পালকি সাজিয়ে আনা হয় পাশের পবা উপজেলার নওহাটা থেকে। এতে তাদের খরচ হয়েছে প্রায় ৪৫ হাজার টাকা।

বরের মা জোসনা বেগম বলেন, বিয়েতে কোনো যৌতুক নেননি। শখের বশে এক ছেলে রিপনের বিয়েতে ঘোড়ার গাড়িতে বউ আনা হয়। আর এবার আরেক ছেলে হাসানের বিয়েতে হাতি ও ঘোড়ার পালকির ব্যবস্থা করেছি।

তানোর কলেজের প্রভাষক আব্দুল আজিজ মন্ডল বলেন, আগের দিনে রাজা-বাদশাদের হাতির পিঠে চড়ে বিয়ে হতো। এ এলাকায় হাতির পিঠে চড়ে বিয়ে এই প্রথম দেখলাম।


এই বিভাগের আরও খবর

  • বিজয়ের রাতে ‘শিক্ষা নগরী রাজশাহী’ সেজেছে মোহনীয় সাজে

  • রাজশাহী টার্মিনালে চা বিক্রি করেন শহীদ বুদ্ধিজীবী সাংবাদিক এমএ সাঈদের ছেলে!

  • রাজশাহীতে শিবিরের মিছিল

  • রাজশাহীতে মুক্তিযোদ্ধাদের বর্ণাঢ্য বিজয় শোভাযাত্রা

  • রাজশাহীর পিএন স্কুল, প্রতিষ্ঠার ১৫০ বছর পর প্রথম পুনর্মিলনী

  • রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে নানা আয়োজনে বিজয় দিবস উদযাপন

  • রাজশাহীতে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনায় উদযাপন করা হচ্ছে বিজয় দিবস

  • বিশ্বের সবচেয়ে বড় ‘মানব মানচিত্র’ রাজশাহী কলেজের

  •