ট্রাফিক পুলিশ কি কোনো নাগরিককে এভাবে পেটাতে পারে?


বার্তা ডেস্কঃ ভিডিওর ব্যাকগ্রাউন্ড দেখে বোঝা যাচ্ছে, ঘটনা ফার্মগেটের। কিন্তু কোন তারিখের, তা বোঝা যাচ্ছে না। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একজন মোটরসাইকেলের চালকের সঙ্গে একজন ট্রাফিক পুলিশের বাদানুবাদের দৃশ্য। ঢাকার রাস্তায় এমন দৃশ্য একেবারে বিরল নয়। কিন্তু বাদানুবাদের এক পর্যায়ে ট্রাফিক পুলিশ হাতে থাকা লাঠি দিয়ে মোটরসাইকেলের চালককে হঠাৎ উপর্যপুরি পেটানোর দৃশ্যটা বিরল। এ রকম একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে ফেসবুকে। ভিডিওটি দেখার পর অনেকে প্রশ্ন করেছেন— ট্রাফিক পুলিশের কি নাগরিককে এভাবে পেটানোর এখতিয়ার আছে?

 

বাইক বিডি নামের একটি ফেসবুক পাতা থেকে ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছে। বাংলাদেশ সময় ১১ আগস্ট বেলা পৌনে ১২টায় পোস্ট করা ভিডিওটি একই দিন রাত সাড়ে নয়টা পর্যন্ত দেখা হয়েছে প্রায় আড়াই লাখ বার।

ভিডিওটির নিচে অনেকে ট্রাফিক পুলিশের পরিচয় জেনে তার নামে মামলা করার কথা বলেছেন। অনেকে আবার বলছেন যে, মোটরসাইকেল আরোহীর নিশ্চয় কোনো ভুল ছিলো। এ কথার জবাবে অনেক ফেসবুক ব্যবহারকারী আবার বলেছেন, নাগরিকরা যে ভুলই করুক না কেনো ট্রাফিক পুলিশের এখতিয়ার নেই তাকে লাঠি দিয়ে পেটানোর।

মোহাম্মদ ফয়সাল নামে জনৈক ব্যক্তি তার মন্তব্যে বলেছেন, ‘এ সব বিচ্ছিন্ন ঘটনা বলেই বিবেচিত। কী আর করা…আমাদের দেশ এর চেয়ে বড় সমস্যায় জর্জরিত, এ সব দেখার কি আর সময় আছে? এ ব্যাপারে কোন কার্যক্রম হবে কিনা সন্দেহ, তবে ঘটনা বিপরীত হলে বাইকার এতক্ষণে চৌদ্দ শিকের ভেতরে থাকতেন।’

আনিসুর রহমান রিমো নামে একজন বলেছেন, ‘আপনারা অনেকেই পুলিশকে দোষ দিয়েছেন। কিন্তু পিছনের লোকটার যে হেলমেট ছিলো না; সে কিন্তু আইন ভেঙেছে। এই কারণেই সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। পুলিশের লাঠি ব্যবহার করা ঠিক হয়নি। আইনে যা হয় তাই করা উচিত ছিল।’

 


এই বিভাগের আরো খবর

  • জামায়াতের ২০ নারী সদস্য রিমান্ডে

  • নিখোঁজ হওয়ার ৫ দিন পর লাশ উদ্ধার

  • ঢাকায় ২০ লাখ টাকাসহ ৮ ডাকাত আটক

  • ফার্মের জালে অজগর ধরা

  • দুপুরে আদালতে যাবেন খালেদা

  • ফালুর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

  • ছাত্রলীগের শুভেচ্ছা মিছিল শেখ রাসেলের জন্মদিনে

  • সিলেটে যাচ্ছেন শিক্ষামন্ত্রী ৫ দিনের সরকারি সফরে

  •